Ar-Rihlah Foundation

গাজার জন্য সহায়তা

গাজার জন্য সহায়তা

গাজার জন্য সহায়তা – তুফানুল আকসা শুরু হওয়ার পর থেকে ৪ মাসের অধিক হয়ে গেল। এখনো দখলদাররা ফিলিস্তিনের গাজ্জা উপত্যকায় আগ্রাসন চালিয়ে যাচ্ছে।

গত ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ তারিখের পাওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গাজা উপত্যকায় দখলদারবাহিনীর চলমান আগ্রাসনের ফলে ২৯,৪১০+ জন শহীদ হয়েছেন। এছাড়াও আহত রয়েছে প্রায় ৬৯,৪৬৫+ জনের বেশি। 

হামাসের দায়িত্বশীল উসামা হামদান বলেছন, বর্তমানে রাফাহ শহরে ১.৪ মিলিয়ন বাসিন্দা রয়েছে। যারা ৭ অক্টোবর ২০২৩ এর পর ইসরাইলি হামলায় ঘর-বাড়ি হারিয়ে শরণার্থীদের ন্যায় জীবন-যাপন করছে। তাদের উপর গত কয়েকদিন ঘরে ইসরাইল বিমান হামলা করছে। জায়োনিস্টরা স্কুল, খোলা জায়গা, অ্যাম্বুলেন্স, হাসপাতাল, শরণার্থীদের তাবুর উপর বোমা হামলা করছে। 

 বর্তমানে উত্তর গাজ্জার হাসপাতালগুলিতে চিকিৎসা সহায়তা এবং জ্বালানি পৌঁছানোর ক্ষেত্রে ইসরায়েলি হানাদাররা বাধা দিচ্ছে। এছাড়াও উত্তর গাজার হাসপাতালগুলি বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় আছে।

উত্তর গাজ্জায় ত্রান খুব কম পরিমাণে পৌঁছায় মানুষ পশু-পাখির খাবারকে একটি প্রক্রিয়ায় পিঠা বানিয়ে ক্ষুধা নিবারণ করছে।

অনেক বাড়ি-ঘর ধ্বংস হয়ে গেছে। মিসরের রাফাহ ক্রসিং দিয়ে প্রতিদিন ২০০ এর কাছাকাছি ত্রানের ট্রাক প্রবেশ করছে। যদিও এটি অনেক কম। হামাসের জনৈক দায়িত্বশীল বলেছেন, কমপক্ষে ৫০০ ট্রাক দরকার মানুষের প্রয়োজন পূরণার্থে।

এছাড়াও গাজ্জার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ আল কুদরা বলেন, গাজ্জায় বর্তমানে সাড়ে ৩ লাখের বেশি মানুষ গুরুতর রোগে আক্রান্ত। কিন্তু তারা চিকিৎসা পাচ্ছে না। কারণ, গাজ্জায় চিকিৎসা সরঞ্জাম অবশিষ্ট নেই।

গাজ্জার জন্য পাশ্ববর্তী রাষ্ট্রগুলো, আন্তর্জাতিক ত্রান সংস্থা ও চ্যারিটি সংস্থাগুলো অনুদান সংগ্রহের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

আমাদের বাংলাদেশ থেকে গাজ্জার জন্য অনুদান পাঠাতে চাইলে আমাদের আন্তর্জাতিক ত্রান সংস্থার মাধ্যমগুলোর মাধ্যমেই পাঠাতে হয়।

আপনি চাইলে আন্তর্জাতিক চ্যারিটি সংস্থার মাধ্যমে গাজার জন্য সহায়তা পাঠাতে পারেন। কিন্তু এর জন্য আপনার প্রয়োজন হবে পাসপোর্ট ইনড্রোর্স করা ভিসা কার্ড অথবা ক্রেডিট কার্ড।

যেহেতু এটি বাংলাদেশের অধিকাংশের পক্ষে সম্ভব নয়। তাই আমাদের আর-রিহলাহ ফাউন্ডেশন ফিলিস্তিনের জন্য অনুদান সংগ্রহে কাজ করছে।

এই টাকা বর্তমানে ফিলিস্তিনে কাজ করা One Nation এর মাধ্যমে ফিলিস্তিনের গাজ্জায় পাঠানো হবে ইনশাআল্লাহ।

অনুদান দিন

গাজ্জার জন্য খাদ্য

গাজ্জার মানুষের জন্য গরম খাদ্য সংগ্রহে সাহায্য করুন
৫০০ পাঁচশত টাকা অনুদান
  • one nation এর মাধ্যমে প্রেরণ
  • বিকাশ পেমেন্ট সিস্টেম

গাজ্জার জন্য খাদ্য

গাজ্জার মানুষের জন্য গরম খাদ্য সংগ্রহে সাহায্য করুন
Custom নিজের ইচ্ছানুযায়ী অনুদান
  • one nation এর মাধ্যমে প্রেরণ
  • বিকাশ,নগদ,রকেট,ব্যাংক সিস্টেম

গাজ্জার জন্য খাদ্য

গাজ্জার মানুষের জন্য গরম খাদ্য সংগ্রহে সাহায্য করুন
১০০০ এক হাজার টাকা অনুদান
  • one nation এর মাধ্যমে প্রেরণ
  • বিকাশ পেমেন্ট সিস্টেম
বর্তমানে জনপ্রিয়

গাজ্জার জন্য চিকিৎসা

গাজ্জার আহত মানুষের জন্য চিকিৎসা বাবদ অনুদান দিন
৫০০০ পাঁচ হাজার টাকা অনুদান
  • one nation এর মাধ্যমে প্রেরণ
  • বিকাশ পেমেন্ট সিস্টেম

গাজ্জার জন্য প্রয়োজনীয়

গাজ্জার মানুষের প্রয়োজনীয় উপাদান বাবদ অনুদান
১০০০ এক হাজার টাকা অনুদান
  • one nation এর মাধ্যমে প্রেরণ
  • বিকাশ,নগদ,রকেট,ব্যাংক সিস্টেম

গাজ্জার জন্য খাদ্য

গাজ্জার মানুষের জন্য গরম খাদ্য সংগ্রহে সাহায্য করুন
Custom নিজের ইচ্ছানুযায়ী অনুদান
  • one nation এর মাধ্যমে প্রেরণ
  • বিকাশ পেমেন্ট সিস্টেম
মিশর থেকে গাজা

আমাদের কার্যক্রম

২য় ধাপে ফিলিস্তিনের জন্য ডোনেশন

আর-রিহলাহ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ২য় ধাপে ফিলিস্তিনের জন্য ডোনেশন প্রেরণ করা হয়েছে।

প্রথম ধাপে ফিলিস্তিনে ১১ নভেম্বর ২০২৩ তারিখে আমরা ১৪১৪৳ ডোনেট পাঠিয়েছিলাম।

এখন দ্বিতীয় ধাপে (১১ ডিসেম্বর ২০২৩) আমরা ৪৮০৪৳ ডোনেট পাঠাতে পেরেছি।

উক্ত টাকা ফিলিস্তিনে বর্তমানে কাজ করা One Nation এর নিকট পাঠানো হয়েছে। ডোনেশন নং #293946 ।

donate for gaza

আলহামদুলিল্লাহ, তৃতীয় ধাপে ফিলিস্তিনের গাজ্জার জন্য ডোনেশন পাঠানো হয়েছে One Ummah Charity এর মাধ্যমে। তারা ফিলিস্তিনে তুফানুল আকসা যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে অনেক কাজ করেছে। এবার আমাদের ফান্ডে ফিলিস্তিনের জন্য মোট টাকা উঠেছিল ২৮০০৳। One Ummah Charity তে উক্ত টাকা পাউন্ড হিসেবে পাঠানো হয়েছে। ১০ জানুয়ারী ২০২৪ তারিখে ১ পাউন্ড = ১৪৬.২৳ করে রেট কাঁটা হয়েছে। সেই মোতাবেক আমরা মোট £20.00 পাউন্ড পাঠিয়েছি। আমাদের উক্ত টাকা সম-পরিমাণ এসেছে ২,৯২৪৳। বাড়তি ১২৪৳ ফাউন্ডেশন বহন করেছে। আমাদের ডোনেশনে ১০০% ডোনেশন নীতি অনুসরণ করা হয়।

গাজার জন্য সহায়তা

আলহামদুলিল্লাহ, চতুর্থ ধাপে গাজার জন্য সহায়তা পাঠানো হয়েছে ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ তারিখে।

এবার আমাদের মোট টাকা উঠেছিল ২৭,৯৫০৳ থেকে একটু বেশি। আমরা উক্ত টাকা one nation এর মাধ্যমে ফিলিস্তিনের গাজায় পাঠিয়েছি। 

আমাদের ডোনেশনে ১০০% অনুদান নীতি থাকায় এটির প্রসেসিং ফি, ভ্যাট ফাউন্ডেশন নিজেই বহন করেছে।

One Naion UK এর গাজ্জায় কাজ করার ভিডিও চিত্র

Scroll to Top